প্রোগ্রামিং এর চৌদ্দগুষ্টি pdf download

প্রোগ্রামিং এর চৌদ্দগুষ্টি pdf download। ‘প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী’ বইয়ের ভুমিকাঃ প্রোগ্রামিংয়ের বেসিক জিনিসগুলা শিখলাম, দুই-একটা বইও পড়লাম। টুকটাক প্রোগ্রামিং পারি। কিন্তু এর পর কি করবো? আর কী কী জানলে একজন পরিপূর্ন প্রোগ্রামার হওয়া যাবে? কী কী করলে প্রোগ্রামিংয়ের চাকরির জন্য এপ্লাই করা যাবে? কতদিন লাগবে? আচ্ছা, গুগল মাইক্রোসফট, ফেইসবুকের মতো বড় বড় কোম্পানিতে চাকরি পাওয়ার জন্য কি কি করা লাগবে? এপ্লাই করে যাচ্ছি কিন্তু ইন্টারভিউতে কল পাচ্ছি না, কি করবো?

এই প্রশ্নগুলোর যাদের মাথায় দীর্ঘদিন ধরে কুট কুট করে কামড়ে যাচ্ছে তাদের জন্য এই বই ‘প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী’।

এই বইটার তিনটা উদ্দেশ্য-

১. যারা প্রোগ্রামিংয়ের বেসিক জিনিসগুলো শিখার পরে কি করতে হবে জানে না, তাদেরকে নেক্সট লেভেলে নিয়ে যাওয়া।

২. যারা প্রোগ্রামিং শিখে চাকরি পেতে চায় তাদের কমপ্লিট একটা গাইডলাইন দেয়া।

৩. প্রোগ্রামিংয়ের ইন্টারিভিউতে যে কোম্পানি যে এঙ্গেল থেকেই প্রশ্ন করুক না কেনো, সেটার যাতে উত্তর দিতে পারার মতো করে প্রস্তুত করে নেয়া। সেটা ছোট, মাঝারি এমনকি গুগল, মাইক্রোসফট, ফেইসবুকের মতো বড় কোম্পানি হোক না কেনো।

বইটি কাদের জন্য

যারা একটু-আধটু প্রোগ্রমিং জানে। বেসিক কনসেপ্টগুলো বুঝে। কমপক্ষে ভেরিয়েবল, array, লুপ, if-else এই জিনিসগুলো বুঝে। তাদের জন্য এই বইটি। যারা একদমই প্রোগ্রামিং সম্পর্কে কিছুই জানে না- তাদের পড়তে হালকা একটু কষ্ট হবে। তবে যেভাবে প্রোগ্রামিংয়ের জিনিসগুলো উপস্থাপন করা হয়েছে। তারা পড়া চালিয়ে যেতে পারে।

আর যদি একদম পাঙ্খা স্টাইলে পড়তে চায় তাহলে- একই লেখকের ‘হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং’ () আগে পড়বে। তারপর ‘প্রোগ্রামিংয়ের বলদ টু বস’ পড়বে। তারপর প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী পড়বে।

বইটির ভূমিকায় লেখক লিখেছেন

হুজুগে, বাপের হোটেল বন্ধ হয়ে যাওয়ার দুর্যোগে, কিংবা গুগল, মাইক্রোসফট, ফেইসবুকের মতো বড় বড় কোম্পানিতে চাকরি পাওয়ার সুযোগে; যে যেকারনেই প্রোগ্রামিং শিখতে আগ্রহী হোক না কেনো তাকে প্রোগ্রামার হিসেবে একটু লেভেলে উঠতে হবে।

এই লেভেলটা প্রোগ্রামিংয়ের কয়েকটা বেসিক জিনিসে কিক মেরে, দু-চারবার কোডের রান বাটনে ক্লিক করে, বাকি সময় মার্বেল খেলে, কদবেল গিলে পাওয়া যায় না। বরং একটা প্রফেশনাল সফটওয়্যার বানানোর সব এরিয়া সম্পর্কে ধারণা নিতে হবে। প্রবলেম সলভিং, অ্যালগরিদম, টাইম কমপ্লেক্সিটি, রিকারসন, ডাটাবেজ, আর্কিটেকচার, হাবিজাবি বুঝতে হবে, ইন্টারভিউ পার হওয়ার স্পেশাল প্রিপারেশন নিতে হবে। প্রোগ্রামিংয়ের ইন্টারভিউতে যত এঙ্গেলে প্রশ্ন করতে পারে, তত এঙ্গেলে নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে। অর্থাৎ প্রোগ্রামিংয়ের বাপ-মা, মামা-খালু, ফুফাতো ভাই, চাচাতো বোনসহ প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠীকে সঙ্গে নিয়ে মাঠে নামতে হবে।

এই চৌদ্দগোষ্ঠীর কথা শুনলেই যাদের গলা শুকিয়ে যায়, মাথায় ঝিম ধরে তাদের জন্যই চায়ের দোকানের গল্প, আড্ডা আর মাস্তির মাধ্যমে প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠীকে উপস্থাপন করা হয়েছে। চায়ের দোকানের আড্ডার ভাষা দিয়ে। যাতে হাবলু-বলদ মার্কা পিছিয়ে পড়া একজনের চাকরি পাওয়ার সংগ্রামের সাথে অন্যরাও শিখে শিখে প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী উদ্ধার করতে পারে।

আরও পড়ুন:   জীবন বদলে যাবে pdf download

বইয়ের সূচি/অধ্যায় সমূহ

ভাষণের Word Count করে চাইলে ভ্যাট

Duplicate Entry চিপায় গিয়ে করবে চ্যাট

সিজনাল কবি String Reverse করে মারে চাপ

Time Complexity দেখে কয় বাপরে বাপ

দেখলে Recursive Function এর ফুলের তোড়া

জাগে Fibonacci series এর মনে প্রেমের ধারা

Sorted Array মার্জ করতে ধোঁয়া মারে চুঙ্গী

Property ধরে সার্চ করেও খুঁজে পায়না লুঙ্গি

ধরে ধরে sort করলেও খুশি হয়না ঢংঙ্গী

Database তুই পালাবি কোথায়

Relational Database এর ব্রেকআপের গুতায়

Server এর সাথে Database এর প্রেম জমে

Architecture ডায়াগ্রাম হিংসায় কেঁদে মরে

Comment, Convention খায়না ভাত

Error দেখলেই মাথায় হাত

ফকিরা Resumeতে ডিম পাড়ে না হাঁস

না বুঝে এপ্লাই করলে আইক্কাওয়ালা বাঁশ

গুগল, এমাজনে চাকরি পাওয়ার কায়দা

চাকরির প্রথম প্রথম লাইফ হবে ময়দা

লেগে থাকলে খেতে পাবে ফালুদা

বইটি সম্পর্কে ড. রাগিব হাসান যা বললেন-

অনুজপ্রতিম ঝংকার মাহবুবের সাথে আমার পরিচয় বছর কয়েক আগে, শিক্ষক.কমে একটি কোর্স পড়ানোর সময়। অবাক হয়ে খেয়াল করলাম, ওর এই কোর্সটা তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে সবার কাছে। কিন্তু কেন? ছাত্র হয়ে আমিও ঢুকে গেলাম ওর কোর্সে আর অবাক হয়ে খেয়াল করলাম, যেকোনো কঠিন খটোমটো টেকনিক্যাল বিষয়কেও কতটা মজাদার করে পড়ানো সম্ভব!

ঝংকারের এবারের প্রজেক্ট হলো প্রোগ্রামিংকে সহজ-সরল ভাষায় বোঝানো আর সে এ বিষয়টা নিয়ে লিখছে, তাতে কম্পিউটারবিজ্ঞানী ও শিক্ষক হিসেবে আমি যারপরনাই আনন্দিত… প্রোগ্রামিংয়ের মতো দরকারি জিনিস আমরা যখন পড়েছিলাম, তখন অনেক সময় ভেবেছি আরেকটু যদি ইন্টারেস্টিং করে লেখা একটা বই পেতাম, কত মজাই না হতো প্রোগ্রামিং শেখার সেই সময়টা!

ঝংকারের প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী বইটা পড়তে গিয়ে আমি সেই আনন্দটা পেয়েছি— গল্পের মাধ্যমে এমনভাবে বইটা লেখা, পড়ে মনে হয় চোখ বুজলেই যেন দেখতে পাব, পাঠকের সামনে দাঁড়িয়ে ঝংকার গভীর মমতায় শেখাচ্ছে প্রোগ্রামিং। ঝংকারের এ বইটি পড়তে গিয়ে পুরোটা সময় সেই প্রথম প্রোগ্রামিং শেখার সময়টার মতো আনন্দ পেয়েছি, টানটান উত্তেজনা, হাসি আর মজার মাঝে ঝংকার যেভাবে প্রোগ্রামিং শিখিয়ে দিচ্ছে এ বইয়ে, হয়তোবা বাংলায় সেভাবে আগে কেউ লেখেনি। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, এই বইটা বাংলাদেশের কিশোর, তরুণ বয়সীর কাছে প্রোগ্রামিংকে খটোমটো যান্ত্রিক কিছু নয়; বরং আনন্দময় মজাদার একটা কাজ হিসেবে তুলে ধরবে আর ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সামনে তুলে ধরবে প্রোগ্রামিংয়ের বর্ণিল জগৎ।

আরও পড়ুন:   প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ডেটা স্ট্রাকচার ও অ্যালগরিদম pdf download

ড. রাগিব হাসান

কম্পিউটারবিজ্ঞানী

সহযোগী অধ্যাপক, ইউনিভার্সিটি অব অ্যালাবামা অ্যাট বার্মিংহাম

প্রতিষ্ঠাতা: শিক্ষক ডটকম

  • বই: প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী
  • লেখক: ঝংকার মাহবুব
  • ক্যাটাগরি: কম্পিউটার প্রোগ্রামিং
  • ভাষা: বাংলা
  • ফরম্যাট: Free Download (ফ্রি ডাউনলোড)
  • প্রকাশনী: আদর্শ
  • প্রকাশকাল: ২০১৮
  • মোট পেজ: ১৮৪ টি
  • ফাইল সাইজ: এম্বি

প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী pdf বইয়ের প্রথম কিছু অংশ পড়ুন।

1.হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং

2.প্রোগ্রামিংয়ের বলদ টু বস

এই ধারাবাহিকতা বজিয়ে রেখে কেউ যদি এই ৩য় বইটি পড়ে থাকে এবং নিজে নিজে পরবর্তীতে বই শেখা জিনিসগুলাকে কাজে লাগিয়ে নতুন নতুন Problem Solving এর চেষটা করে তাহলে বেশ উপকারিতে পাবে।

সব থেকে ভাল একটা ব্যাপার হচ্ছে ঝাংকার ভাইয়ের প্রোগ্রামিং এর তিন টি বই ই খুব সাবলীল বাংলা ভাষা তে খুব মজার মজার গল্প বা কথার মাধ্যমে তুলে ধরা হইয়েছে প্রত্যকটি বিষয়।

লেখক পরিচিতি:


ঝংকার মাহবুব

পাঠকসমাজে তাঁর পরিচিতি এখন গৎবাঁধা লেখার বাইরে নতুনত্বের আমেজ এনে দেওয়া তরুণ লেখক হিসেবে। তিনি ঝংকার মাহবুব, পেশায় একজন ওয়েব ডেভেলপার। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং এ স্নাতক পাশ করার পর যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ডাকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন ঝংকার মাহবুব। বাংলাদেশের তরুণ লেখকদের মধ্য থেকে ঝংকার মাহবুব এর বই আলাদা করা যায় খুব সহজেই। তাঁর লেখার বিষয়গুলোও ব্যতিক্রমধর্মী। কম্পিউটার প্রোগ্রামিংকে কীভাবে এ দেশের তরুণদের মাঝে সহজবোধ্য করা যায়– তা নিয়েই ঝংকার মাহবুব এর বই সমূহ। তাঁর লেখা বইগুলোতে তিনি প্রোগ্রামিংয়ের মতো কাঠখোট্টা জিনিসকে আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করে যাচ্ছেন। ঝংকার মাহবুবের বই সমগ্র এখন এ দেশের তরুণ প্রোগ্রামারদের কাছে প্রোগ্রামিং শেখার মজার বন্ধু হয়ে উঠছে এবং এই বইগুলোর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে। তাঁর লেখা উল্লেখযোগ্য কিছু বই হলো রিচার্জ ইয়োর ডাউন ব্যাটারি, হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং, প্রোগ্রামিংয়ের বলদ টু বস, প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী, প্যারাময় লাইফের প্যারাসিটামল ইত্যাদি। প্রোগ্রামিং শেখানো সহজ করা বইগুলোর মূল উদ্দেশ্য হলেও ঝংকার মাহবুব তাঁর লেখার মাধ্যমে অনুপ্রাণিত করেছেন তরুণ প্রোগ্রামারদেরকে। লেখালেখির পাশাপাশি বর্তমানে তিনি শিকাগোর নিলসেন কোম্পানিতে সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কর্মরত আছেন।

প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী বইটি সম্পর্কে পাঠকদের মন্তব্য।

Moinuddin বলেছেন: প্রোগ্রামিং নিয়ে যারা কনফিউজড হয়ে আছে, শুরু করবো করবো বলে কিছুই শেখা হচ্ছে না, প্রোগ্রামিং এর স্বপ্ন দেখে নাকে তেল দিয়ে যারা ঘুমিয়ে যায়… তাদের জন্য বইটা বেশ ভালো।

আরও পড়ুন:   অঙ্ক ভাইয়া Pdf Download

প্রতিটা প্রোগ্রামিং ভাষায় কিছু সাধারন বিষয় থাকে, যেগুলো সম্পর্কে আইডিয়া সবার থাকা দরকার, সে ব্যক্তি প্রোগ্রামিং করুক আর না-ই করুক।

আর যারা প্রোগ্রামিং শিখতে গিয়ে কী দিয়ে শুরু করবে, কোন ল্যাংগুইজ আগে ধরবে, এসব নিয়ে চিন্তা করতে করতে সময় নষ্ট করতেছে, তাদের উচিত এই বেসিক বিষয়গুলো সম্পর্কে জানা। এতে পরাবর্তিতে যেকোনো প্রোগ্রামিং ল্যাংগুইজ শেখা ইজি হয়ে যাবে।

বইটাতে এরকম বেসিক জিনিসগুলো গল্পের ছলে তুলে ধরা হয়েছে। সব মিলিয়ে বইটা ভালোই বলা চলে।

Rakibul Islam বলেছেন: ১.হাবুলদের জন্য প্রোগ্রামিং ২. প্রোগ্রামিংয়ের বলদ টু বস ৩. প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী। এই তিনটি বই অসাধারণ লিখেছন “ঝংকার মাহবুব” ভাই। প্রোগ্রামিং শেখার জন্য বাংলায় এর ভাল বই আর হতে পারেনা। কারন লেখক এত সহজ করে বিষয়গুলো আলোচনা করেছেন যার ফলে কেউ যদি প্রোগ্রামিং কিছু নাও জানে তারপরও খুব ভালো এবং স্পষ্ট ধারণা পাবে প্রোগ্রামিং এর উপর।

MAHI ADNAN MIM বলেছেন: বই টা এক কথাই ও অসাধারন । বই টা মুলত জাভাস্ক্রিপ্ট নিএ লেখা ও গল্পপের মাদ্ধমে অনেক সুন্দর ভাবে বুজানো হয়েছে । আমাকে বিশেষ করে লেখক পরিচিতির কথা গুলা অনেক ভাল লেগেছে ।

Mohammad Abdullah বলেছেন: বইটিতে মূলত javascript ল্যাংগুয়েজের প্রধান ও মৌলিক বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে।যারা প্রোগ্রামিং শিখতে আগ্রহী বা ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট সেক্টরে দক্ষতার সাথে কাজ করতে ইচ্ছুক তাদের জন্য বইটি অনেক হেল্পফুল হবে আশাকরছি।বইটি সকল শ্রেণীর মানুষের জন্য। এতে মজার ছলে অনেক কঠিন বিষয় বুঝানো হয়েছে। বইটি পড়ে যতটা আমি যতটা শিক্ষতে পেরেছি,তারছেয়ে বেশি আনন্দ পেয়েছি।আমাদের রেগুলার লাইফের মজার কিছু বিষয় বুজানোর হাতিয়ার হিসেবে লেখক ব্যবহার করেছেন।

TOUFIKUR RAHMAN বলেছেন: প্রোগ্রামিং এর উপর ভিত্তি করে বইটি লেখা বইটিতে প্রোগ্রামিং বিষয়ে বর্ণনা করা হয়েছে ll বইটা আসলেই অসাধারণ !

প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী বইটি pdf download করুন নিচের লিংক থেকে।

প্রিয় পাঠক প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী বইটি pdf download করতে আমরা কখনোই আপনাদের উৎসাহীত করছি না। আমাদের অনুরোধ থাকবে প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী বইটি আপনার নিকটস্থ লাইব্রেরী অথবা অনলাইন বইয়ের দোকান থেকে হার্ডকপি ক্রয় করুন এতে করে সম্মানিত লেখকগন তাদের লেখার প্রতি আরো উৎসাহিত হবেন।

আর হ্যা বন্ধুরা আপনারা চাইলেই বইটি এই অনলাইন শপ গুলো থেকে খুব সহজেই ক্রয় করতে পারবেন।

রকমারি:  https://www.rokomari.com/book/158227/programming-er-chouddogoshthi

Was this article helpful?
YesNo

Leave a Comment